নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে হারানো মোরগ খুঁজতে গিয়ে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার খাগকান্দা ইউনিয়নের ডেঙ্গুরকান্দি এলাকা থেকে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে। তারা হলেন-ওই এলাকার ডেঙ্গুরকান্দি গ্রামের রমজানের ছেলে আপন (২০) এবং সুরুজ মিয়ার ছেলে মাহাবুব (১৯)।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, ওই কিশোরীর পরিবারের দু'টি মোরগ হারিয়ে গিয়েছিল। রোববার সন্ধ্যায় সে মোরগ খুঁজতে যায়। এসময় পাশের বাড়ির আপন (২০) মুখ চেপে ধরে তাকে তুলে নিয়ে যায়। পরে ডেঙ্গুরকান্দি সায়েদাবাদ জঙ্গলে নিয়ে সুরুজ মিয়ার ছেলে মাহাবুবের সহযোগিতায় তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে তাকে আটকে রাখা হয়। পরে রাত ১১টার দিকে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে ওই কিশোরী বাড়ি ফিরে পরিবারকে সব কিছু খুলে বলে। 

তিনি জানান, বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য দিনভর প্রভাবশালী মহল চেষ্টা চালায়। কিন্তু সোমবার রাতে কিশোরীর মা বাদী হয়ে আপন এবং মাহাবুবকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার ভোরে এজাহারভুক্ত দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

বিষয় : ধর্ষণ কিশোরীকে ধর্ষণ মোরগ

মন্তব্য করুন