খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সরকার দুর্নীতিমুক্ত রাষ্ট্র ও সমাজ গঠনে বদ্ধপরিকর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদিচ্ছার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে গুরুত্ব দিয়ে সৎ, নিষ্ঠাবান, সমাজে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিদের দলে ঠাঁই দিতে হবে। যারা দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী; তাদের কোনভাবেই দলে স্থান দেয়া যাবে না। 

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্যে দিয়ে সারা দেশে সুষম উন্নয়ন সাধন করে চলেছে। দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ করা হয়েছে। দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। দেশের এই অভাবনীয় পরিবর্তন ও উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্ব আর দুরদর্শিতার কারণেই।

কোভিড-১৯ প্রতিরোধের বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সদিচ্ছা ও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের কারণেই বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা অনেক কম। করোনা মোকাবেলায় আমরা সফল। আবার অতি দ্রুত ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে করোনা প্রতিরোধে সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করা সম্ভব হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে নওগাঁর রানীনগর শেরে বাংলা কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রউফ দুলুর সভাপতিত্বে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, সংসদ সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন হেলাল, সংসদ সদস্য ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাবেক এমপি বেগম শাহিন মনোয়ারা হক, সাংগঠনিক সম্পাদক জাভেদ জাহাঙ্গীর সোহেল, শাকিল আহমেদ বাদল ও বিভাষ মজুমদার গোপাল। 

এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মালেক সকাল সাড়ে এগারোটায় রানীনগর শেরে বাংলা কলেজ মাঠে এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। দ্বিতীয় অধিবেশনে মো. আনোয়ার হোসেন হেলালকে সভাপতি,আব্দুর রউফ দুলুকে সাধারণ সম্পাদক এবং আব্দুল বারী, ডা. ইউনুস আলী, আনোয়ার হোসেন, আবুল হাসনাত হাসান, ফরিদা বেগমকে সহ-সভাপতি, গোলাম হোসেন ও আবুল আরিফ রাঙাকে যুগ্ম সম্পাদক ও জার্জিস আলম মিঠুকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে আংশিক উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্য করুন