তিন বছর আগে রংপুরে আলোচিত দুই খালাতো বোনের আত্মহত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআই বলছে, দুই বোনের প্রেমিক ছিল একই ব্যক্তি। এ প্রতারণার বিষয়টি জানতে পেরে দুই বোন বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

পিবিআই সূত্রে জানা যায়, রংপুর নগরীর শেখপাড়া এলাকার আনছার আলীর ছেলে মেরাজুল ইসলামের (২১) সঙ্গে একই গ্রামের আলমগীর হোসেনের মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী সাদিয়া জান্নাতি ও তার খালাতো বোন পূর্ব শেখপাড়া এলাকার মঞ্জুর হোসেনের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী লুৎফুন্নাহার খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তবে দুই বোনের কেউই জানত না যে, মিরাজুল তাদের দু'জনের সঙ্গেই প্রেম করছে। 

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দু'জনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে তোলে মেরাজুল। বিষয়টি জানাজানি হলে ২০১৮ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি শেখপাড়ায় নানা বাড়িতে গিয়ে একই সঙ্গে দুই বোন বিষপানে আত্মহত্যা করে।

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হলে প্রায় আড়াই বছর তদন্ত করার পরও ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি থানা পুলিশ। পরে পিবিআইকে মামলাটির তদন্তভার দেওয়া হয়। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে পিবিআই প্রেমিক মেরাজুলকে গ্রেপ্তার করে। পরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে মেরাজুল দুই বোনের সঙ্গে প্রেম ও শারীরিক সম্পর্কের কথা স্বীকার করে।

শনিবার পিবিআইর পুলিশ সুপার এবিএম জাকির হোসেন বলেন, মামলার তদন্তের এক পর্যায়ে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দেখে আমরা নিশ্চিত হই মৃত্যুর আগে দুই বোনকেই ধর্ষণ করা হয়েছে। এরপর অনুসন্ধান ও মেরাজুলকে গ্রেপ্তারের পর পুরো বিষয়টি পরিস্কার হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার মেরাজুল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

মন্তব্য করুন