চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ঘুমিয়ে থাকা এক বৃদ্ধাকে নিজ ঘরে গলা কেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় পৌর এলাকার বাবুপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যমুনা পালের (৬০) স্বামীর নাম সুকুমার। একমাত্র ছেলে উজ্জল পালের স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গে একটি ভাড়া বাড়িতে থাকতেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার রাতে যমুনা পাল নিজ ঘরে শুয়ে ঘুমিযে ছিলেন। রাতের কোনও এক সময় কে বা কারা তাকে গলা কেটে হত্যা করে। সকালে দেখা যায়, তার ঘরের দরজা খোলা এবং খাটের উপর রক্তমাখা লাশ।

খবর পেয়ে শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। মরদেহ রাখা ঘরটি পুলিশ ঘিরে রেখেছে। মরদেহ উদ্ধারের জন্য এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শনের জন্য ঘটনাস্থলে সিআইডি টিমকে তলব করা হয়েছে।

স্বজনরা জানিয়েছেন, নিহত যমুনার একমাত্র ছেলে রাজশাহীতে একটি স্বর্ণকারের দোকানে কাজ করায় এবং ২০ বছর আগে স্বামী সুকুমার তাকে ছেড়ে চলে যাওয়ায় ছেলের স্ত্রী এবং ছেলের একটি শিশুপুত্রকে নিয়ে শিবগঞ্জ পৌর এলাকার বাবুপাড়া গ্রামের লুলুর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তিনি।

নিহতের ভাই জন পাল এবং বোন শ্রী মতি জোসনা রানী হালদার তাদের বোনের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন জানান, তিনি খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে একটি গলা কাট লাশ পেয়েছেন। তদন্ত চলছে।



মন্তব্য করুন