থাইল্যান্ড-মিয়ানমার হয়ে দেশে ঢুকছে উচ্চ মূল্যের মাদক ক্রিস্টাল মেথ বা আইস। কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশ থেকে দুই কেজি আইসসহ এক যুবকে আটক করা হয়েছে। তার নাম আব্দুল্লাহ। জব্দকৃত আইসের আনুমানিক মূল্য ১০ কোটি টাকা। 

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের (ডিএনসি) প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ডিএনসির মহাপরিচালক মোহাম্মদ আহসানুল জব্বার বলেন, বুধবার টেকনাফের ২৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন জাদিমুড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আইসসহ আব্দুল্লাহকে আটক করা হয়েছে। অভিযানের সময় আব্দুল্লাহর ভাই আব্দুর রহমান পালিয়ে গেছেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এই মাদকটি মিয়ানমার থেকে দেশে আনার জন্য গ্রিন টির প্যাকেট ব্যবহার করা হয়েছিল।

ডিএনসির মহাপরিচালক আরও বলেন, আইস বা ক্রিস্টাল ইয়াবার চেয়ে ১০০ গুণ শক্তিশালী মাদক। এর দামও অনেক বেশি। সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, মিয়ানমারসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় অত্যন্ত জনপ্রিয় মাদক এটি। এই মাদক বাংলাদেশে ব্যবহার হয় কিনা এ বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। জব্দ করা আইস দেশে ব্যবহারের জন্য আনা হয়েছিল নাকি অন্য কোনো দেশে পাচার হতো তা এখনই বলা যাচ্ছে না। অনুসন্ধান চলছে। তবে এর আগে কয়েকবার আইসের বাজারজাত করার চেষ্টা হয়েছিল এ দেশে। এর আগে ২০১৯ সালে ভাটারা এলাকা থেকে ৫২০ গ্রাম আইসসহ একজনকে গ্রেপ্তার করেছিল ডিএনসি।