সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁওয়ে সাম্প্রদায়িক হামলার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে তাদের বিচারসহ পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে সুনামগঞ্জবাসী। 

সোমবার বিকেলে রাজধানীর গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের সামনে 'সংক্ষুব্ধ সুনামগঞ্জবাসী'র ব্যানারে আয়োজিত নাগরিক সমাবেশে এসব দাবি জানান তারা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো- ক্ষতিগ্রস্তদের রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া, হামলার উস্কানিদাতাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া, বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা এবং 'পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা থাকার পরও স্থানীয় প্রশাসন নিরাপত্তা ব্যবস্থা দিতে ব্যর্থ হওয়ায়' তাদের প্রত্যাহারসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সব্র্রত দাস খোকনের সভাপতিত্বে সমাবেশে কবি ও লেখক আলমগীর শাহরিয়ার, ছাত্রলীগের উপ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক মিহির দাস, সহসম্পাদক ওয়াসিম আকরাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, গত ১৭ মার্চ জাতির পিতার জন্মদিনে সাম্প্রদায়িক ন্যক্কারজনক হামলায় হিন্দু অধ্যুষিত নোয়াগাঁওবাসী অপরিমেয় ক্ষতির শিকার হয়েছে। তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করা, সম্পদ লুট এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ অনেককে নির্যাতন করা হয়েছে। এমন হামলা একাত্তরের বিভীষিকার কথাই মনে করিয়ে দেয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের মাহেন্দ্রক্ষণে এমন হামলা আমাদের হতবাক করেছে।

এ ধরণের হামলাকে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের ওপর আঘাত বলে উল্লেখ করে তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধে অর্জিত আমাদের রাষ্ট্র পরিচালনার দলিল সংবিধানের ১২ অনুচ্ছেদে স্পষ্ট বলা আছে, 'ধর্মনিরপেক্ষতা নীতি বাস্তবায়নের জন্য (ক) সর্বপ্রকার সাম্প্রদায়িকতা, (খ) রাষ্ট্র কর্তৃক কোনও ধর্মকে রাজনৈতিক মর্যাদা দান, (গ) রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ধর্মীয় অপব্যবহার, (ঘ) কোনও বিশেষ ধর্ম পালনকারী ব্যক্তির উপর বৈষম্য বা তাহার উপর নিপীড়ন বিলোপ করা হইবে।'

একশ্রেণির চতুর ধর্ম ব্যবসায়ী ও উগ্রবাদী গোষ্ঠীকে দিনের পর দিন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহারের অভিযোগ এনে বক্তারা বলেন, ধর্ম ব্যবসায়ীরা শান্তিপ্রিয়, ধর্মপ্রাণ, সহজ সরল সাধারণ মানুষকে প্ররোচিত করছে সংঘাত ও সহিংসতার দিকে। সমাজে, সম্প্রদায়ে ছড়াচ্ছে হিংসা ও ঘৃণার বিষবাষ্প। শাল্লার ঘটনা তা থেকে বিচ্ছিন্ন নয়। এখানেও আমরা দেখতে পাই সেই পুরোনো উগ্রবাদী গোষ্ঠীর উস্কানি। তাদের উস্কানিতে, তাদের নামেই স্লোগান দিয়ে হামলা হয়েছে। সে ভিডিও আছে। রামু, নাসিরনগর, ভোলা থেকে শাল্লা একই পরিকল্পনার ছক। দেশে সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা রুখতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তারা।