ঝিনাইদহের পানামী ও হরিণাকুন্ডু উপজেলার দারিয়াপুর গ্রামে ৩০ কৃষকের ২৫ বিঘা জমির পানবরজসহ ৬টি বসতবাড়ি পুড়ে গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে।

হরিণাকুন্ডুর দারিয়াপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মিঠু মিয়া জানান, দুপুরে দারিয়াপুর গ্রামের সাহেব আলী নামের এক কৃষক তার গমের জমির আগাছা পোড়ানোর জন্য আগুন দেন। সেই আগুন তার পানবরজে ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে আগুন আশপাশের বরজে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে হরিণাকুন্ডু ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে পুড়ে যায় ওই গ্রামের রাজু মিয়া, ইবাদত হোসেন, রুস্তম আলী, ইশারত আলী, নুর হক, মঞ্জের আলী, বিশারত আলী, নিজাম উদ্দিন, লতিফ হোসেন, সৌরভ আলী, মকছেদ আলীসহ ২৫ জন কৃষকের পানবরজ । এতে তাদের প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়- ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা।

হরিণাকুন্ডু উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাফিজ হাসান বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২৫ জন কৃষকের বরজসহ পান পুড়ে গেছে। 

এদিকে একই সময় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পানামী কুন্ডুপাড়ায় পৃথক আগুনের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৬টি বসতবাড়ি ও ৫ বিঘা জমির পানের বরজ পুড়ে গেছে। 

স্থানীয় মনির হোসেন জানান, পানামী কুন্ডুপাড়ার কাসেমের রান্নাঘর থেকে প্রথমে আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর আগুন ওই গ্রামের কাসেম, সোহরাব, ঝানু, মাসেম, ইসরাফিল ও শাজাহানের বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে আগুন পাশের মাঠের লব, দেবকুমার, সিরাজ মল্লিককসহ অন্তত ৫ পানচাষির ৫ বরজে ছড়িয়ে পড়ে। 

ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. সুমন আলী জানান, দুপুর দেড়টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। তারা খবর পেয়ে সোয়া ২টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এরপর ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা টেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

মন্তব্য করুন