ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানায় হামলা চালিয়েছেন হেফাজত নেতাকর্মীরা। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে মিছিল নিয়ে বের হলে পুলিশ বাধা দিলে এ ঘটনা ঘটে।

শনিবার দুপুর ২টায় ভাঙ্গা ঈদগাহ মোড়ে মিছিল বের করেন শত শত হেফাজত নেতাকর্মী। মিছিলে বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে তদের সংঘর্ষ হয়। পরে হেফাজতের নেতাকর্মীরা থানায় ঢুকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেন।

এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৩৫ রাউন্ড গুলি ছুড়ে। এ ঘটনায় হেফাজতের দুই কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় ইটের আঘাতে ভাঙ্গা থানার ছয় পুলিশ সদস্য আহত হন। আহতদের ভাঙ্গা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, উপপরিদর্শক (এসআই) আজাদ ও সহিদুল্লাহ, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আজিজুর রহমান, কনস্টেবল জয়নাল, মতিয়ার ও শাহজালাল। এছাড়া আটকরা হলেন, মাওলানা মো. তলহা ও মো. আকাশ।

খবর পেয়ে ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান ও ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ লুৎফর রহমান বলেন, কিছু বুঝে ওঠার আগেই হেফাজতের শত শত নেতাকর্মী থানায় ঢুকে ভাঙচুর করেছেন। এ হামলায় আমাদের ছয় পুলিশ আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৩৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়েছে।