সারাদেশে হেফাজতের ডাকা হরতালের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেনে ইটপাটকেল নিক্ষেপের পর ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। রোববার সকাল ৯টা ২০ মিনিট থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট রেলপথ দুটি বন্ধ।

ঢাকা থেকে সিলেটগামী আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস পৈরতলা রেলগেটে পৌঁছলে বিক্ষোভকারীরা রেলপথ অবরোধ করে ট্রেনটিতে ইটপাটকেল ছোড়া শুরু করলে চালক অবস্থা বেগতিক দেখে ট্রেনটি ফিরিয়ে তালশহর স্টেশনে নিতে বাধ্য হন। একইভাবে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেসও অবরোধের মুখে ফিরিয়ে ভৈরব রেলস্টেশনে নিয়ে আটকানো হয়েছে। এছাড়াও আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ভৈরব স্টেশনে আটকা পড়েছে। এ ঘটনায় আরও কয়েকটি ট্রেন আশপাশের স্টেশনে আটকা পড়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. সোয়েব জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। কয়েকটি ট্রেন বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়েছে।

আখাউড় রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল করিম বলেন, রোববার সকালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও আশুগঞ্জের মধ্যবর্তী তালশহর এলাকা অতিক্রম করার সময় হরতাল সমর্থনকারীরা ইটপাটকেল ছোড়েন। তাই নিরাপত্তাজনিত কারণে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

সোনার বাংলা ট্রেনটি ভৈরব রেলওয়ে জংশন স্টেশনে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ঢাকাগামী আন্তঃনগর উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে আটকা পড়েছে বলে জানান ওসি।

এদিকে হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। শহরের সব দোকানপাটও বন্ধ রয়েছে; দূরপাল্লার কোনো যানবাহন ছেড়ে যেতে দেখা যায়নি।

সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে আগুন জ্বালিয়ে এবং বিদ্যুতের খুঁটি ফেলে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রেখেছেন হরতালকারীরা।