মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী ইউনিয়নের চালিমিয়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে রোববার সকালে দু'পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে জালাল মোল্যা (৬০) নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। এ সময় উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মহম্মদপুর থানার ওসি তদন্ত মামুন বিশ্বাস জানান, বাবুখালীর চালিমিয়া মৌজায় কিছু সম্পত্তি নিয়ে একই গ্রামের আকিদুল মোল্যার সঙ্গে জালাল মোল্যার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে ঘটনার দিন সকালে চালিমিয়া গ্রামের স্কুলপাড়া এলাকার আকিদুল ও হালিম শেখের নেতৃত্বে একদল লোক জালাল মোল্যার ভোগদখলীয় সম্পত্তি দখল করতে আসে। এ সময় প্রতিপক্ষরা বাধা দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেড়ে যায়। দেশি অস্ত্র নিয়ে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী দু'পক্ষের সংঘর্ষ চলে। 

খবর পেয়ে বাবুখালী পুলিশ ক্যাম্প ও মহম্মদপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সংঘর্ষে আকিদুল ও তার লোকজনের লাঠির আঘাতে জালাল মোল্যা ও তার ছেলে ঈসমাইল মোল্যা গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে মাগুরার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে। জালাল মোল্যার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

ঘটনাস্থল থেকে আটক তিনজন হলো- আরিফ, আকবর ও নাঈম। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ওসি জানান, নিহতের ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।