'স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ'-এ উত্তরণ উপলক্ষে জেলা প্রশাসন, খুলনা'র আয়োজনে খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানে সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সমাপনী অনুষ্ঠানে খুলনা জেলা প্রশাসনের এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হিসেবে শহিদ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান ৭০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

দিনভর আয়োজিত কর্মসূচির  মধ্যে সকালে ‘রূপকল্প ২০৪১: উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া 'স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীঃ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ' উদযাপন উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের জন্য আয়োজিত কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয় এবং সার্কিট হাউজ ময়দানে স্থাপিত সেরা ৭টি স্টলকে উত্তম সেবা প্রদানকারী ক্যাটাগরিতে, সেরা ১২টি স্টলকে সুসজ্জিতকরণ ক্যাটাগরিতে, সেরা ৩টি স্টলকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ক্যাটাগরিতে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সম্মাননা, পুরস্কার ও ক্রেস্ট প্রদান করেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, কেএমপি'র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আনোয়ারুল কাদির, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, সাবেক মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক আলমগীর কবীর, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম জাহিদ হোসেন এবং খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি জনাব মুন্সী মাহবুবুল আলম সোহাগ প্রমুখ।