রাজবাড়ীতে রেলস্টেশনের অদূরে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা একটি লেভেলক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে রাজবাড়ী-ভাঙ্গা রেলপথে সদর উপজেলার বসন্তপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের চর খানখানাপুর গ্রামের ইউছুফ শেখের ছেলে ট্রাকচালক পলাশ শেখ ও একই ইউনিয়নের সরদারপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেনের ছেলে হেলপার মিলন হোসেন। আহত হয়েছেন বাবলু মোল্লা নামের একজন। 

এ ঘটনায় ট্রেনের ইঞ্জিন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে প্রায় তিন ঘণ্টা পর ট্রেনটি গন্তব্যে ছেড়ে যায়।

রাজবাড়ী রেলওয়ে সূত্র জানায়, ভাঙ্গা থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী আন্তঃনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি বসন্তপুর রেল স্টেশনে ঢোকার আগে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা রেলক্রসিংয়ে মাটিবাহী একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাকের চালক, হেলপারসহ তিনজন আহত হন। তাদেরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায়  ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

আন্তঃনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের গার্ড আবুল হোসেন জানান, ইটভাটায় মাটি পরিবহনের জন্য সম্পূর্ণ অবৈধভাবে ওই রেলক্রসিংটি গড়ে তোলা হয়েছে। হুইসেল দিয়ে ট্রেন লেভেলক্রসিং পার হওয়ার সময় মাটিবাহী ট্রাকটি ইঞ্জিনের সাথে ধাক্কা খায়। এতে ইঞ্জিনটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রাজবাড়ী থেকে ইঞ্জিন  আনার পর প্রায় তিন ঘণ্টা পর অপক্ষাকৃত কম গতিতে ট্রেনটি গন্তব্যে রওনা হয়।

রাজবাড়ী জিআরপি থানার ওসি মাসুদ আলম জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে সেখানে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তিনি যাওয়ার  আগেই আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সেখানে দুজন মারা গেছে বলে শুনেছেন। এব্যাপারে রেল কর্তৃপক্ষ এজাহার দিলে গ্রহণ করা হবে।