বৃহত্তর ময়মনসিংহ সাংবাদিক সমিতি-ঢাকার নতুন সভাপতি হিসেবে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালালকে পুননির্বাচিত করা হয়েছে এবং সংগঠনের নতুন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে অনলাইন নিউজ পোর্টাল রাইজিংবিডির উপদেষ্টা সম্পাদক উদয় হাকিমকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে এই সংগঠনের ৩৫ সদস্যের নির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়। জাতীয় প্রেসক্লাবে সংগঠনের প্রীতিভোজ ও সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর ময়মনসিংহের কৃতি সন্তান সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর ময়মনসিংহের কৃতি সন্তান তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মোল্লা জালাল।

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু তার বক্তব্যে বলেন, মৌলবাদের মূলোৎপাটন করতে এখনই কাজ শুরু করতে হবে। অন্যথায় দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হবে। মৌলবাদের মূলোৎপাটন করতে দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। তা না হলে তাদের অপকর্ম, ভাংচুর, তাণ্ডব মহামারিতে রূপ নিতে পারে। যা চলমান উন্নয়ন ধারাকে বাধাগ্রস্ত করবে।

বিশেষ অতিথি তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান মৌলবাদীদের তাণ্ডবের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুললতে গণমাধ্যমকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বৃহত্তর ময়মনসিংহের সংস্কৃতিসহ নানা দিক থেকে ঐতিহ্য আছে। এই অঞ্চলের সাংবাদিকদের এই সংগঠন শক্তিশালী করতে প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াবেন বলে আশ্বাস দেন।

সভাপতির বক্তব্যে মোল্লা জালাল বলেন, বৃহত্তর ময়মনসিংহ সাংবাদিক সমিতি কোন দল নয়, ক্লাব বা প্রতিষ্ঠান নয়। এটি একটি 'মাই ম্যান কনসেপ্ট'। শিশির বিন্দু যেমন ধরা যায় না, দেখা বা ছোয়া যায় না- অনুভব করা যায়। মাই ম্যান কনসেপ্ট হচ্ছে এমনই একটি বিষয়। তিনি বলেন, 'আমরা মাই ম্যানরা যখন ঐক্যবদ্ধ থাকি তখন সকল অর্জন আমাদের পক্ষে আসে। তাই আগামীতে এই কনসেপ্টকে আরও শক্তিশালী করা হবে।'

উদয় হাকিম সংগঠনের বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক নুরুল হাসান খানের স্থলাভিষিক্ত হলেন। সম্মেলনের এক পর্যায়ে নির্বাহি কমিটির জরুরি সভা শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই বছর মেয়াদের নতুন কমিটি ঘোষণা করেন সমিতির নবনির্বাচিত সহসভাপতি নুরুল হাসান খান।

নতুন কমিটির সহসভাপতিরা হলেন, আশরাফ আলী (টাঙ্গাইল), মহসিন আব্বাস (কিশোরগঞ্জ), নুরুল হাসান খান (নেত্রকোনা), পল্লব মাহমুদ (জামালপুর), রুশো হায়দার (শেরপুর)। যুগ্ম সাধারন সম্পাদকরা হলেন, ইব্রাহিম খলিল খোকন (কিশোরগঞ্জ), মো. শাহজাদা (জামালপুর), শওকত আলী খান লিথো (নেত্রকোনা), আকতার হোসেন (ময়মনসিংহ) ও তানজিল রিমন (শেরপুর)।

এছাড়া সরদার ফরিদ আহমদকে কোষাধ্যক্ষ, বাহরাম খানকে প্রচার সম্পাদক, গোলাম কিবরিয়াকে দফতর সম্পাদক করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক সম্পাদকের পদটি শুন্য রয়েছে। নির্বাহি কমিটির সভায় শিগগির এই পদটি পুরণ করা হবে।

সমিতির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বৃহত্তর ময়মনসিংহের ৬ জেলা থেকে পদাধিকারবলে সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন, কিশোরগঞ্জ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আজিজুল হক এরশাদ, সাধারণ সম্পাদক হামিদ মোহাম্মদ জসীম, টাঙ্গাইল সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি তালুকদার হারুন, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মান্না, ময়মনসিংহ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি উৎপল কুমার সরকার, সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, জামালপুর সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আবু সাঈদ, সাধারণ সম্পাদক উবায়দুল্লাহ বাদল, নেত্রকোনা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ফারুক তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ করিম, শেরপুর সাংবাদিক ফোরামের আহবায়ক হকিকত জাহান হকি ও সদস্য সচিব মামুন আবদুল্লাহ।

কমিটিতে ছয় জেলার নারী সদস্যরা হলেন, মফিদা আকবর (ময়মনসিংহ), শাকিলা জেসমিন (কিশোরগঞ্জ), শাহনাজ পারভীন এলিচ (টাঙ্গাইল), বনশ্রী ডলি (নেত্রকোনা), খাতুনে জান্নাত কনা (জামালপুর) ও তাছলিমা হোসেন শিখা (শেরপুর)।