ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

গরুকে ঘাস খাওয়াতে স্কুলমাঠে খেলাধুলা নিষিদ্ধ!

গরুকে ঘাস খাওয়াতে স্কুলমাঠে খেলাধুলা নিষিদ্ধ!

বিদ্যালয়ের মাঠের চারপাশে জাল টানিয়ে বেড়া দেওয়া হয়। ছবি: সমকাল

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ৩০ নভেম্বর ২০২৩ | ২০:১৭

বরগুনায় আমতলীতে গরুকে ঘাস খাওয়ানোর জন্য শারিকখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে খেলাধুলা নিষিদ্ধ করে জাল টানিয়ে বেড়া দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহিদা বেগমের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। পরে তিনি বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আমতলীর সদর ইউনিয়নের শারিকখালী গ্রামের শারিকখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহিদা বেগম তার ছোট ভাই বাচ্চু শলীফের গরুকে ঘাস খাওয়ানোর জন্য স্কুলের মাঠজুড়ে জাল টানিয়ে বেড়া দিয়েছেন। এর ফলে স্কুলের শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা মাঠে প্রবেশ করতে না পেরে খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বিদ্যালয়ের চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, বিদ্যালয়ে ক্লাশের অবসরে আমাদের খেলাধুলার ইচ্ছা থাকলেও হেড স্যারের নির্দেশের কারণে আমরা মাঠে খেলাধুলা করতে পারছি না।

স্থানীয় যুবকদেরও একই অভিযোগ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, বিকেলে আমরা এই স্কুলের মাঠে ফুটবলসহ নানা খেলাধুলা করতাম। এখন প্রধান শিক্ষক মাঠে জালের বেড়া দিয়ে আটকিয়ে দিয়েছে। আমরা সেখানে প্রবেশ করতে পারছি না। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, স্কুলের মাঠে ফল, ফুল ও কলাগাছের চাষ করায় তা রক্ষার জন্য জালের বেড়া দিয়েছি। খেলাধুলা নিষিদ্ধ করতে এ কাজ করিনি। শিক্ষার্থীদের মাঠে নামতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বর্তমানে পরীক্ষা চলছে। তাই শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করতে নিষেধ করা হয়েছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মো. শাহজাহান কবির বলেন, বিষয়টি জানার পর মাঠটি উন্মুক্ত করে দিতে বলেছি। এরপরও প্রধান শিক্ষক তা শুনছেন না।

আমতলী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফিকুল আলম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আশরাফুল আলম বলেন, সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

×