হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনায় বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নতুন করে সাতটি এবং কিশোরগঞ্জে দুটি মামলা হয়েছে। এ নিয়ে সহিংসতার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া মোট ১৯টি এবং কিশোরগঞ্জে ছয়টি মামলা হলো। এসব মামলায় আসামি হয়েছে অন্তত ৩০ হাজার।

নতুন সাতটি মামলার সবক'টিই ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় দায়ের করা হয়েছে। নতুন মামলাগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- পৌরসভা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ, গণগ্রন্থাগার ভাঙচুর ও প্রেস ক্লাব ভাঙচুরের মামলা। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সদর মডেল থানায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ১৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

এ ছাড়াও গত বুধবার পর্যন্ত সরাইল থানায় একটি, আশুগঞ্জ থানায় দুটি ও আখাউড়া রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১৯টি মামলায় ১০৭ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ২২ হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে কিশোরগঞ্জে সন্ত্রাস দমন আইনে আরও দুটি মামলা হয়েছে। এ নিয়ে একই ঘটনায় ছয়টি মামলায় আসামি করা হয় ৯ হাজার জনকে। পুলিশ জানায়, হরতালের দিন আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গতকাল জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আহমেদ উল্লাহ বাদী হয়ে এক হাজার অজ্ঞাতনামাকে আসামি করে মামলা করেন। একই হামলার ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন সুমন মোল্লা বাদী হয়ে আরেকটি মামলা করেন।