করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে লকডাউন বিবেচনা করে এবারও মঙ্গল শোভাযাত্রা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, পহেলা বৈশাখ ১৪২৮ বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সশরীরে কোনো মঙ্গল শোভাযাত্রা করা হবে না। তবে প্রতিকী কর্মসূচি হিসেবে চারুকলা অনুষদের শিল্পীদের তৈরি মঙ্গল শোভাযাত্রার বিভিন্ন মুখোশ ও প্রতীক ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রদর্শন ও সম্প্রচারের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

এতে আরও বলা হয়, নববর্ষ উপলক্ষে এ বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কোনো ধরনের মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গণজমায়েত করা যাবে না। মহামারির উদ্ভূত পরিস্থিতি উত্তরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৯ মার্চ উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে এক ভার্চুয়াল সভায় করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এ বছর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অত্যন্ত সীমিত পরিসরে বাংলা নববর্ষ উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

এদিকে বৈশাখের প্রথম দিন; অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল থেকে দেশে শুরু হচ্ছে এক সপ্তাহের ‘সর্বাত্মক লকডাউন’। এই সময়ে সব অফিস, গণপরিবহন বন্ধ থাকার পাশাপাশি বাজার-মার্কেট, হোটেল-রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এমনকি অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যেতেও নিষেধ করা হয়েছে। সরকারি প্রজ্ঞাপনের পরই মঙ্গল শোভাযাত্রা নিয়ে এ ঘোষণা এসেছে।

করোনাভাইরাসের কারণে গতবছরও পহেলা বৈশাখে মঙ্গল শোভাযাত্রা হয়নি।

মন্তব্য করুন