ফরিদপুরের বীরাঙ্গনা মায়া রানী সাহাকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন জেলা প্রশাসন। 

শনিবার দুপুরে ফরিদপুর শহরতলীর শোভারামপুরে মায়া রানীর কাছে একটি সেমি পাকা ঘরের নির্মাণ সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন-সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাসুম রেজা, প্রশাসনের কয়েকজন কর্মকর্তা ও  স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাসুম রেজা বলেন, মুজিববর্ষে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য আবাসস্থল নির্মাণে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি ব্যক্তি ও সংস্থা এগিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ফরিদপুর জেলা প্রশাসন বীরাঙ্গনা মায়া রানী সাহাকে এই ঘরটি মুজিব বর্ষের উপহার হিসেবে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ফরিদপুরের শোভারামপুরে নিজ বাড়িতে হানাদার বাহিনী ও স্থানীয় দোসরদের দ্বারা নির্যাতিত হন মায়া রানী সাহা। তবে তার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি না থাকায় মানবেতর জীবন কাটাচ্ছিলেন। বিষয়টি ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানার সঙ্গে সঙ্গে তার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির ব্যবস্থা করেন। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক একটি প্রতিবেদন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পাঠান। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তাকে স্বীকৃতিস্বরূপ নারী মুক্তিযোদ্ধা (বীরাঙ্গনা) গেজেটভুক্ত করে। স্বীকৃতির পর তিনি ভাতা পাচ্ছেন। তার এই স্বীকৃতির জন্য তিনি প্রশাসনের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

মন্তব্য করুন