জামালপুরের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেফমুবিপ্রবি) কোষাধ্যক্ষ পদে অবসরপ্রাপ্ত একজন অতিরিক্ত সচিবকে নিয়োগের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। শিক্ষক নেতারা অবিলম্বে এই নিয়োগ বাতিলের দাবি জানিয়েছেন।

রোববার শিক্ষক সমিতির সহসভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ শফিকুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক ড. তানজিল সওগাত স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ পদে নন-একাডেমিক ব্যক্তির নিয়োগকে ঘিরে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অধ্যাপনা করেননি এমন একজন ব্যক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা, শিক্ষা কার্যক্রম, ও জ্ঞানচর্চার আর্থিক সিদ্ধান্তে কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারবেন তা নিয়ে শিক্ষকরা উদ্বিগ্ন।

এতে আরও বলা হয়, স্বায়ত্তশাসিত একটি প্রতিষ্ঠানে একজন প্রশাসনিক সরকারি কর্মকর্তার নিয়োগ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসনের পরিপন্থি।

গত ৫ মে অবসর উত্তর ছুটিতে থাকা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আবদুল মান্নানকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। রাষ্ট্রপতি ও আচার্যের অনুমোদনে তাকে চার বছরের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।