নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদীতে ছিনতাইকালে এক নারীসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। এসময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত টাকা ও ছুরি উদ্ধার করা হয়।

সোমবার দুপুরে শহরের নাইস গেস্ট হাউজের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। তারা হলেন- বিনোদপুর ইউনিয়নের সফিপুর গ্রামের সফি উল্লা'র ছেলে নজরুল ইসলাম (৪০), একই এলাকার নজরুল ইসলামের স্ত্রী রোজিনা আক্তার (৩০) ও পূর্ব শুল্লকিয়া গ্রামের আবদুল কাইয়ুমের ছেলে হুমায়ন (২০)।

স্থানীয়রা জানায়, শহরের কৃষ্ণারামপুর এলাকার বাসিন্দা মোর্শেদ আলম দত্তেরহাট বাজারে যাওয়ার জন্য মাইজদী বড় মসজিদ মোড়ে অপেক্ষা করছিলেন। এসময় একটি সিএনজি এসে তার সামনে দাঁড়িয়ে কোথায় যাবেন জিজ্ঞাসা করে গাড়িতে উঠতে বলে। প্রথমে মোর্শেদ সিএনজিতে উঠে সামনের সিটে বসেন। কিছুদুর যাওয়ার পর তার বমি আসছে বলে আটক নজরুল ইসলাম সামনে গিয়ে মোর্শেদকে পেছনের সিটে বসতে বললে তিনি পেছনে গিয়ে বসেন। পরে সিএনজির পেছনে থাকা রোজিনা বেগম মোর্শেদকে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকেন। একপর্যায়ে তারা মোর্শেদের বুকে ছুরি ধরে তার সঙ্গে থাকা সবকিছু দিয়ে দিতে বলেন। এসময় মোর্শেদ চিৎকার করলে সিএনজিচালক আরও দ্রুত চালাতে থাকেন। কিন্তু কিছু পথ যাওয়ার পর সড়কে জ্যাম থাকায় এবং মোর্শেদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাদের আটক করে।

সুধারাম মডেল থানার ওসি সাহেদ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ছিনতাইকারীদের আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত ৬২৫ টাকা ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মোর্শেদ আলম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মন্তব্য করুন