ভোলার চরফ্যাসন উপজেলায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রুবেল নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে মেয়েটি।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বড় ভাই বাদী হয়ে রুবেলকে আসামি করে রোববার ভোলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মেয়েটিকে প্রাইভেট পড়তে আসা-যাওয়ার পথে একই এলাকার রুবেল প্রেমের প্রস্তাব দেয়। রাজি না হওয়ায় তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে সে। একদিন বাড়িতে এসে আত্মহত্যার হুমকি দেয় রুবেল। এরপর তাদের মধ্যে প্রেম হয়। পরে বিয়ের প্রলোভনে মেয়েটির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে। বর্তমানে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ওই কিশোরী। বিষয়টি রুবেলকে জানানোর পর সে গা-ঢাকা দিয়েছে। রুবেলের পরিবার থেকে গর্ভপাত ঘটানোর জন্য মেয়ের পরিবারকে হুমকি-ধমকি দেওয়া হচ্ছে।

মেয়েটির ভাবি জানান, স্থানীয় মাতবররা রুবেলের পক্ষ নিয়ে তাদের হুমকি-ধমকি দিচ্ছেন। এ কারণে ভুক্তভোগী মেয়েটি ও তার পরিবার গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

অভিযুক্ত রুবেল আত্মগোপনে থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। তবে তার বড় ভাই ফারুক বলেন, আর্থিক লেনদেনের বিষয় নিয়ে তার ছোটভাইকে ফাঁসানো হচ্ছে।

শশীভূষণ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। আদালত থেকেও কোনো আদেশ পাওয়া যায়নি, পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।