অনেক খোঁজাখুঁজির পর অবশেষে বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের তালিকাভুক্ত বাঘ শিকারী হাবিব তালুকদারকে (৫০) গ্রেপ্তার করেছে শরণখোলা থানা পুলিশ। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বনসংলগ্ন মধ্য সোনাতলা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান বলেন, বাঘ শিকারী হাবিরের নামে শরণখোলা থানায় তিনটি ওয়ারেন্ট ছিল। তাকে দীর্ঘদিন ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সোর্সের মাধ্যমে তাকে গ্রেপ্তার করে শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শরণখোলা রেঞ্জ বন কর্মকর্তা (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদীন জানান, হাবিব তালুকদার বাঘ হাবিব নামে বনবিভাগের তালিকাভুক্ত অপরাধী। তার হাতে গত ২০ বছরে কমপক্ষে ৭০টি বাঘ মারা পড়েছে বলে এর আগে বন বিভাগের কাছে সে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। তার নামে ৯টি বন অপরাধের মামলা রয়েছে। এর মধ্যে তিনটিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে।

শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) মো. আব্দুল মান্নান বলেন, বাঘ শিকারী হাবিব বনবিভাগ ও পুলিশের কাছে মোস্ট ওয়ান্টেড। তাকে অনেক আগে থেকেই সুন্দরবনে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তার পরও গোপনে বনে ঢুকে বন্যপ্রাণি শিকার করেন। তার নামে একাধিক মামলা থাকার পরও এই সে অপরাধ থামায়নি। এর পেছনে একাধিক শক্তিশালী চক্র জড়িত রয়েছে।