বান্দরবানের লামায় কুয়েত প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই মেয়েকে হত্যার ৯ দিনের মাথায় পুলিশ নিহত মাজেদার আপন দুই দেবরকে গ্রেপ্তার করে কোর্টের মাধ্যমে তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছেন।

রিমান্ডের আসামিরা হলেন- নিহত মাজেদা বেগমের দুই দেবর আব্দুল খালেক ও মো, শাহ আলম। বিষয়টি লামা থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. মিজানুর রহমান নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, নির্ভরযোগ্য সূত্রে খবর পেয়ে গত শুক্রবার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের চম্পাতলী গ্রামে নিহত মাজেদা বেগমের দুই দেবর আব্দুল খালেক ও শাহ আলমকে স্বপরিবারে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। এখানে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে শনিবার বিকেলে আব্দুল খালেক ও শাহ আলমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে কোর্টের মাধ্যমে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। পরে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

গত ২১ মে রাতে লামা পৌসভার ১নং ওয়ার্ডের চম্পাতলী গ্রামের কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদের স্ত্রী মাজেদা বেগমসহ দুই মেয়ের লাশ উদ্ধার করেন পুলিশ। ধারণা করা হয়, এর আগেরদিন বৃহস্পতিবার রাতের যেকোনো এক সময় তাদের হত্যার পর নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে দিয়ে সরে পড়ে খুনিরা। পরের দিন শুক্রবার সারাদিন তাদের সাড়াশব্দ না পেয়ে সন্ধ্যার পর ঘরের পেছনের জানালা দিয়ে নিহতের দেবর আব্দুল খালেক উঁকি দিয়ে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ওইদিন রাত সাড়ে নয়টায় ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের লাশ উদ্ধার করে।