জলোচ্ছ্বাস ও জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে খুলনার দাকোপ উপজেলার বাণিশান্তা যৌনপল্লির অধিকাংশ ঘরের মালপত্র। ঘরে পানি ওঠায় দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছেন ওই পল্লির নারী ও শিশুরা। এ অবস্থায় পশুর নদে স্থায়ী ও টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণসহ ছয় দফা দাবিতে মানববন্ধন করছেন পল্লির বাসিন্দারা। 

শনিবার পশুর নদের তীরে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ভুক্তভোগীরা জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন তারা কর্মহীন। আয় না থাকায় পরিবার নিয়ে অনেকে অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছেন। দেনায় জর্জরিত অধিকাংশ নারী। এর মধ্যে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসে পল্লির অধিকাংশ ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তারা আক্ষেপ করে বলেন, আমাদের কথা কেউ ভাবে না। এই ঝড়-জলোচ্ছ্বাসে আমরা বেঁচে আছি নাকি মারা গেছি, সে খবর নিতেও কেউ আসেনি। বয়স্কদের অবস্থা আরও ভয়াবহ।

মানববন্ধন থেকে তারা টেকসই বেড়িবাঁধের পাশাপাশি সব যৌনপল্লির নারীর জন্য ভাতা প্রদান, অক্ষম যৌনকর্মীদের জন্য বয়স্ক-ভাতা প্রদান, সারাদেশের সরকারি তালিকাভুক্ত সব যৌনকর্মীর জন্য মাসিক রেশনের ব্যবস্থা করা, যৌনপল্লির শিশুদের জন্য দ্রুত শেল্টার নির্মাণ ও বয়স্কদের জন্য সরকারি বাসস্থানের দাবি জানান।