চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার হিসেবে সম্মুখযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন জিয়াউর রহমান। বীরউত্তম খেতাবেও ভূষিত হয়েছেন। জিয়া স্মৃতি জাদুঘর যুগ যুগ ধরে এখানে (চট্টগ্রামে) আছে। এখানেই থাকবে।’

চট্টগ্রাম পুরোনো সার্কিট হাউসে প্রতিষ্ঠিত জিয়া স্মৃতি জাদুঘরকে ‘মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, চট্টগ্রাম’ ঘোষণার জন্য শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল যে দাবি তুলেছেন, তার বিরোধিতা করে এ কথা বলেন তিনি। শনিবার নগর বিএনপির কার্যালয়ে জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী পালনের প্রস্তুতি সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ডা. শাহাদাত।

এর আগে গত শুক্রবার জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পরিবর্তনের দাবি জানান চট্টগ্রাম কোতোয়ালি আসনের এমপি ব্যারিস্টার নওফেল। ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, 'জিয়াউর রহমানের মতো একজন খুনির নামে এখানে জাদুঘর করা হবে আর সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে সেখানে লোক পালব, চট্টগ্রামবাসী এটা মেনে নিতে পারে না।'

ওই বক্তব্যের জবাবে ডা. শাহাদাত বলেন, হাইব্রিড অনেক নেতার উদ্ভব হয়েছে। যারা রাজনীতি না করে বড় বড় পোস্ট পেয়ে গেছেন। তারা রাজনীতির সঠিক ইতিহাস জানেন না। কোনো দিন কোনো রাজনীতিবিদ জাদুঘর নিয়ে কথা বলেননি। আজ কিছু হাইব্রিড রাজনীতিবিদ এটা বলছেন।

এ সময় চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক এমএ আজিজ, যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী বেলাল উদ্দীন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য আশরাফ চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম দুলাল, মন্‌জুর আলম চৌধুরী মনজু, কামরুল ইসলাম, মহানগর বিএনপি নেতা সিহাব উদ্দীন মোবিন, আব্বাস রশীদ, ইদ্রিস আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।