কুমিল্লায় পাসপোর্ট দালাল চক্রের সাত সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের কাছ থেকে শতাধিক পাসপোর্ট, এ-সংক্রান্ত নথিপত্র, ডেলিভারি স্লিপ, নকল সিলমোহরসহ পৌনে চার লাখ টাকা জব্দ করা হয়। 

মঙ্গলবার কুমিল্লা শহরতলির নোয়াপাড়া ও শাসনগাছা এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।

র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ কুমিল্লা ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব এসব তথ্য জানান। 

জব্দকৃত আলামত 

র‌্যাব জানায়, পাসপোর্ট দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে দূরদূরান্ত থেকে আসা লোকজন নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন- এমন তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় দালাল চক্রের সদস্য ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার দক্ষিণ তেতাভূমি গ্রামের জসিম উদ্দিন, আদর্শ সদর উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামের নিয়াজ মোর্শেদ পল্লব, অলিপুর গ্রামের কাজী আবু আল ফেরদৌস, তিতাস উপজেলার বাতাকান্দি গ্রামের শাহাবুদ্দিন, দেবিদ্বারের ভৈষেরকোট গ্রামের মনিরুল ইসলাম, কুমিল্লার মনোহরপুর এলাকার রতন চন্দ্র ও শাসনগাছা এলাকার গোলাম সারোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তাদের কাছ থেকে ১০৩টি পাসপোর্ট, পাসপোর্টের ব্যক্তিগত বিপুলসংখ্যক ডেলিভারি স্লিপ, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা পর্যায়ের নকল সিলমোহর, একটি সিপিইউ, মনিটর, ল্যাপটপ, প্রিন্টার ও তিন লাখ ৭৭ হাজার ৮০০ টাকা জব্দ করা হয়।

র‌্যাব কর্মকর্তা মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তাররা দীর্ঘদিন ধরে পাসপোর্ট তৈরির নাম করে লোকজনের কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত রেটের থেকে অনেক বেশি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানা মামলা হয়েছে।