ময়মনসিংহে যাত্রীবাহী একটি বাসের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন।

বুধবার বেলা ৩টার দিকে ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা সড়কে সদর উপজেলার রশিদপুর এলাকার এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ থেকে ময়মনসিংহের দিকে যাচ্ছিল অটোরিকশাটি। ময়মনসিংহ থেকে নেত্রকোনার দিকে যাচ্ছিল মহুয়া নামের যাত্রীবাহী বাসটি। কিন্তু ময়মনসিংহ সদর উপজেলার রশিদপুর নামক স্থানে ব্যটারিচালিত অটোরিকশাকে অভারটেক করতে গিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুমড়েমুচড়ে যায় অটোরিকশাটি। সংঘর্ষের পর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাসটি কাছেই খাদে পড়ে।

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থলেই নিহত হন অটোরিকশার দুই যাত্রী। নিহতরা হলেন- মোহনগঞ্জের গজধার গ্রামের করিম মিয়ার ছেলে রিপন মিয়া (৩০) ও সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার আবদুল আজিজের ছেলে বাবলু মিয়া (৪২)।

দুর্ঘটনায় আহত হন আরও অন্তত চারজন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। দুর্ঘটনার পর বেলা ৪ টা পর্যন্ত নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন বলেন, অভার টেকিং এর কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই দু'জনের মৃত্যু হয়। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নয়ন দাস বলেন, লাশ উদ্ধার করে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। সিএনজি ও বাসটি জব্দ করা হয়েছে।


মন্তব্য করুন