ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে গত ১২ জুন। এই কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন মোহাম্মদ রায়হান রনি (২৩) যিনি প্রায় ছয় মাস আগে ঘোষিত আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলের এক নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক পদেও আছেন। আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গত ১২ জুন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক—এই তিন সদস্যবিশিষ্ট আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি অনুমোদন করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তামজিদুল রশিদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ফাহিম আহমেদ। এই তিন সদস্যের আংশিক কমিটিতেই সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জায়গা পেয়েছেন রনি।

এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সৈয়দ আদনান হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হাসান ২১ সদস্যবিশিষ্ট আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের একটি আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেন। ওই কমিটিতেই এক নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে আছে রনির নাম।

তবে একইসঙ্গে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের কমিটিতে থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন রনি। তিনি দাবি করেছেন, সারা জীবন তিনি ছাত্রলীগ করেছেন, কখনো ছাত্রদল করেননি। তিনি ও ছাত্রদলের রায়হান রনি এক ব্যক্তি নন। এ ছাড়া ছাত্রদলের রায়হান রনি নামের কাউকে তিনি চেনেনও না এবং এ নামে আলফাডাঙ্গায় কেউ আছেন বলেও তার জানা নেই।

এ বিষয়ে নিজের বক্তব্য জানাতে শনিবার দুপুরে আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করেন রায়হান রনি। লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি নিজেকে ছাত্রলীগের নেতা দাবি করেন।

তিনি বলেন, ‘আমি আজীবন ছাত্রলীগ করেছি। রাজপথে থেকে মিটিং মিছিল করেছি। আমাকে নিয়ে একটি কুচক্রীমহল হীনস্বার্থ হাসিলে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র করছে। যুবদলের যে রায়হান রনির কথা বলা হচ্ছে সে রায়হান রনি আমি নই। আমি যদি বিএনপির কর্মী হতাম তাহলে কোথাও না কোথাও তাদের সাথে আমার ছবি থাকতো। আমি এই ভিত্তিহীন মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ জানাই।’ 

তবে এ বিষয়ে ভিন্ন বক্তব্য দিয়েছেন উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আব্দুলতা আল মিলন। তিনি বলেন, ‘ছাত্রদলের রায়হান রনি ও ছাত্রলীগের মো. রায়হান রনি একই ব্যক্তি।’ 

রায়হান রনির সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাইফুর রহমান, সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক তৌকির আহম্মেদ ডালিম, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কাজী কাওছার হোসেন টিটো ও পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি রায়হান আজিজ খান।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র সাইফুর রহমান জানান, রায়হান রনিকে ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে দেখেছি। তিনি যে বিএনপি, যুবদল করেছেন এমন কথা আমার জানা নেই। 

একই কথা বলেন সাবেক ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌকির আহম্মেদ ডালিম।