যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব বলেছেন, চরফ্যাসনের কুকরী-মুকরীতে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। সাগর মোহনার দুর্গম চরাঞ্চলগুলোকে রাজধানীতে পরিণত করা যাবে না; তবে এই চরাঞ্চলগুলোকে এমনভাবে গড়ে তোলা হবে যা দেখার জন্য রাজধানীর মানুষ এখানে ছুটে আসবে। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ভোলার চরফ্যাসন, কুকরী-মুকরী, চর নিজাম ও ঢালচরের ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে শনিবার নগদ অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে কুকরী-মুকরীতে যোগাযোগ ও যাতায়াতের জন্য ইকোপার্ক, বন উৎপাদন ও গবেষণা কেন্দ্র, সমুদ্রের দিকনির্দেশক লাইটিং হাউস, ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চলে জীববৈচিত্র্য রক্ষায় অভয়ারণ্য হরিণ প্রজনন কেন্দ্র নির্মাণ এবং সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে কুকরী-মুকরীতে জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করার কাজ চলছে। পর্যটকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে আন্তর্জাতিক মানের আবাসন নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। সাগর মোহনার ম্যানগ্রোভ দ্বীপগুলোকে ঘিরে সরকারের এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে উপকূলের কুকরী-মুকরী, চর নিজাম মনপুরাসহ চরাঞ্চলগুলো আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত হবে।

অনুষ্ঠানে চরফ্যাসন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন আখন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নরুল ইসলাম ভিপি, সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল উদ্দিন মহাজন, ঢালচরের চেয়ারম্যান আবদুস সালাম, আওয়ামী লীগ সভাপতি কালাম মেম্বার, কুকরীর চেয়ারম্যান হাসেম মহাজন, অধ্যক্ষ মনির আহমেদ শুভ্র উপস্থিত ছিলেন।


বিষয় : আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব

মন্তব্য করুন