কুমিল্লা জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল করিম (৩৫) ভারত থেকে দেশে ফিরেই বিজিবির হাতে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে পাঁচথুবী ইউনিয়নের গোলাবাড়ী সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় বিজিবির একটি টহল দল তাকে গ্রেপ্তার করে। তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন হত্যা মামলাসহ হত্যা, ধর্ষণ, ডাকাতির ৩০টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ ও বিজিবি সূত্রে জানা গেছে। রেজাউল সদর দক্ষিণ মডেল থানার শামবক্সি (বল্লভপুর) গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে। গতকাল শনিবার বিজিবি তাকে কোতোয়ালি মডেল থানায় হস্তান্তর করে। আজ তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ।
কুমিল্লা-১০ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক রেজাউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবির একটি টহল দল রেজাউলকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তার ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে চার রাউন্ড গুলিসহ একটি রিভলবার, ১৬ পিস ইয়াবা, তিনটি ভারতীয় পরিচয়পত্র, ভারতের বিভিন্ন ব্যাংকের কার্ড, বাংলাদেশ ও কাতারের কিছু মুদ্রাসহ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়েছে।
দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল করিম সবসময় রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকে। যখন যে সরকার ক্ষমতায় থাকে সেই সরকারের স্থানীয় নেতাদের সঙ্গেই সে যোগাযোগ রক্ষা করে। অস্ত্র ও মাদক বেচাকেনায় তার রয়েছে বড় সিন্ডিকেট। দেলোয়ার খুনের পর থেকে সে বেশির ভাগ সময়ই ভারতে অবস্থান করত। ভারতীয় পাসপোর্টেই সে বিভিন্ন দেশে ঘুরে বেড়াত। তবে বিদেশে থাকলেও কুমিল্লার চৌয়ারা ও আশপাশের এলাকায় তার নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। ছাত্রলীগ কর্মী 'রাসেল' ও 'আপেল' হত্যাকাণ্ডেও তার জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। পুলিশের একটি সূত্র জানায়, দেলোয়ার হত্যার পরপরই ঘাতক রেজাউল ভারতে পালিয়ে যায়। সেখানে ভারতীয় পাসপোর্ট জোগাড় করে দুবাইসহ বিভিন্ন দেশে সে ঘুরে বেড়িয়েছে। কয়েক মাস পর পর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ফাঁকি দিয়ে কুমিল্লা সীমান্ত দিয়ে দেশে প্রবেশ করে এলাকার বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে আবার সে ভারতে পাড়ি জমাত। ক্ষমতাসীন এক প্রভাবশালী নেতার সঙ্গে সখ্য থাকায় জেলার সদর দক্ষিণের একবালিয়া, সদরের বিবির বাজার ও গোলাবাড়ি এলাকা দিয়ে খুব সহজেই সে সীমান্ত অতিক্রম করত।
রেজাউলের গ্রেপ্তার হওয়ার খবরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই কুমিল্লার পরিদর্শক মতিউর রহমান সমকালকে বলেন, দেলোয়ার হত্যা মামলার প্রধান আসামি পলাতক রেজাউল করিম বিজিবির হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে, তাকে এ মামলায় রিমান্ডে আনা হবে। এ বিষয়ে আদালতে আবেদন করা হবে। বিজিবি নতুন করে অস্ত্র ও মাদক আইনে আরও একটি মামলা করেছে। তাকে রোববার আদালতে সোপর্দ করা হবে।

বিষয় : সন্ত্রাসী রেজাউল গ্রেপ্তার

মন্তব্য করুন