বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ১ নম্বর খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাল ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে মৌজে আলী মৃধা (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। সোমবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ এ সময় ৬ রাউন্ড ফাকা গুলি ছোড়ে। এসময় মন্টু হাওলাদার (৫৫) নামের এক ইউপি সদস্য প্রার্থীসহ তিনজন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত ওই তিনজনকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের ফলে ওই কেন্দ্রে ২ঘন্টা ভোটগ্রহন বন্ধ থাকে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১ নম্বর খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ৫ নম্বর কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলাকালে বেলা ১২টার দিকে মোরগ প্রতীকের ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী ফিরোজ মৃধার পক্ষে নয়ন মৃধা নামের এক তরুণ ভোট দেন। এ সময় টিউবওয়েল প্রতীকের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মন্টু হাওলাদার তাকে চ্যালেঞ্জ করে পুলিশে ধরিয়ে দেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও হাতবোমা নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষ চলাকালে মৌজে আলী মৃধা হাতবোমার আঘাতে আহত হন। গুরুতর অবস্থায় তাকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নেওয়ার সময় পথিমধ্যে সে মারা যান। রক্তক্ষয়ী এ সংঘর্ষের সময় টিউবওয়েল প্রতীকের ইউপি সদস্য প্রার্থী মন্টু হাওলাদার (৫৫) ও মোরগ প্রতীকের ইউপি সদস্য প্রার্থী ফিরোজ মৃধার সমর্থক ইমরান মৃধা (৩০), নুরু মৃধা (৫৫) আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত টিউবওয়েল প্রতীকের ইউপি সদস্য প্রার্থী মন্টু হাওলাদারকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও ইমরান মৃধা, নুরু মৃধাকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা সাড়ে ১২টা থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত প্রায় দুই ঘণ্টা ওই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ ছিল। এরপর আবার ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

দুই ঘণ্টা ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকার তথ্য সঠিক নয় দাবি কেরে ওই ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, সংঘর্ষের এক পর্যায়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ভোট গ্রহণ বন্ধ ছিল। পরে আবার ভোটগ্রহণ শুরু করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন বলেন, সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশ শটগানের ৬ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত সেখানে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চলে। 

বিষয় : বরিশাল নির্বাচন সংঘর্ষ নিহত

মন্তব্য করুন