মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কুয়েতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ২৩৬ জন প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে শুধু ২০২০ সালে মারা গেছেন ১৯৮ জন। চলতি বছরের ৯ জুন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৮ জন।

কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাসের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালে কুয়েতে ৫৯৪ জন প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। এরমধ্যে ১৯৮ জনই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। এছাড়া চলতি বছরের ৯ জুন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৭০ জন। এরমধ্যে ৩৮ জন করোনায়।

সোমবার কুয়েতের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, কুয়েতে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৪০ হাজার ৯৬৭ জন। এরমধ্যে সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ২১ হাজার ২৯৩ জন।

দেশটিতে বর্তমানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২২৭ জন। এছাড়া চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ১৭ হাজার ৭৯৭ জন।

সোমবার পর্যন্ত কুয়েতে করোনায় এক হাজার ৮৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে স্থানীয় নাগরিক এবং বিভিন্ন দেশের প্রবাসী রয়েছে। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যে কোনো দেশের নাম উল্লেখ করা হয়নি।

এদিকে দেশটির স্থানীয় পত্রিকার একটি খবরে বলা হয়েছে, কুয়েত প্রবাসী যারা গৃহকর্মীর কাজ করেন, তারা টিকা নিয়ে দেশে ছুটিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলে সহসাই এ দেশে প্রবেশ করতে পারবেন না। এ সিদ্ধান্ত ১ আগস্ট থেকে কার্যকর হবে বলে জানা গেছে।

এছাড়া নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যেসব প্রবাসী আগামী আগস্ট থেকে কুয়েতে প্রবেশ করবেন, তাদের ১৪ দিনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না বলে সূত্রে জানা গেছে। তবে কুয়েত সরকার অনুমোদিত টিকা নেওয়া প্রবাসীদের দেশে প্রবেশের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করোনা সনদ দেখাতে হবে।

বিষয় : মধ্যপ্রাচ্য কুয়েত করোনাভাইরাস প্রবাসী বাংলাদেশ

মন্তব্য করুন