নগরের চান্দগাঁও থানার বাহির সিগন্যাল শংকর দেওয়ানজী হাট বেপারিপাড়া এলাকায় চারতলা ভবনের একটি বাসা থেকে পাঁচ বছরের একটি মেয়েশিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। 

রোববার দুপুরে পুলিশ মেয়েটির লাশ উদ্ধার করে। ধর্ষণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। শিশুটি তার মায়ের সঙ্গে ওই ভবনের ছোট্ট একটি কক্ষে থাকত। রোববার সকালে বাসা থেকে কর্মস্থলে যান তার মা। দুপুর ১২টার দিকে বাসায় ফিরে আসেন। বাসায় এসে মেয়েকে না দেখে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে খাটের নিচে মেয়ের নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তিনি। বিষয়টি প্রতিবেশীদের জানালে তারা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে দুপুর ২টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (উত্তর) আবু বকর সিদ্দিক বলেন, মেয়েটির যৌনাঙ্গে রক্তক্ষরণের চিহ্ন রয়েছে। গলায় গেঞ্জি প্যাঁচানো অবস্থায় ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, শিশুটিকে প্রথমে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এতে ব্যর্থ হয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

চান্দগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ বড়ুয়া সমকালকে জানান, বাসার দরজা খোলা ছিল। এ সময় বাসায় ঢুকে কেউ মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে জানতে ভবনের বাসিন্দা ও আশপাশের এলাকার লোকজনের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।