খুলনার ডুমুরিয়ায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহিলা কলেজ মোড় এলাকায় বুধবার সকালে হঠাৎ বিরল প্রজাতির একটি মুখপোড়া হনুমানের দেখা মিলেছে। স্থানীয়রা মনে করেন, হনুমানটি খাদ্যের অভাবে যশোরের কেশবপুর উপজেলা থেকে দলছুট হয়ে এ এলাকায় চলে এসেছে।

বুধবার হনুমানটি খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের পাশে উপজেলা সদরের ডুমুরিয়া-শরাফপুর সড়কে মহিলা কলেজ মোড় এলাকায় একটি পাকা প্লারের ওপর খুবই শান্ত অবস্থায় বসে থাকতে দেখা যায়। এ সময় স্থানীয় লোকজন হনুমানটিকে রুটি-বিস্কুল দিলে তা সাদরে গ্রহণ করে খেতে শুরু করে। কিছুক্ষণ পর হনুমানটি ডুমুরিয়া-শরাফুপুর সড়ক ধরে ছুটতে থাকে। এরপর ওই সড়কের পাশে বিভিন্ন গাছে, আবার কখনও স্থানীয়দের বাড়ির ছাদে কিংবা প্রাচীরের ওপর উঠে বসে থাকতে দেখা যায়। এক পর্যায় হনুমনটি নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে সড়কের পাশে একটি উঁচু গাছের ডালের ওপর বসে থাকে।

ডুমুরিয়া সদর স্থানীয় ইউপি সদস্য কবিরুল ইসলাম বলেন, সকালে হঠাৎ হনুমানটিকে এ এলাকায় দেখা যায় এবং সে খুবই ক্ষুধার্ত বলে মনে হচ্ছিল। তবে বিভিন্ন মানুষের দেওয়া খাবার হনুমানটি গ্রহণ করছে এবং তা খাচ্ছে। খাবার শেষে হনুমানটি স্থানীয়দের বাড়ি-দোকান বা এলাকার কোনো কৃষকের সবজির ক্ষেত বিনষ্ট করছে না। মাঝে মধ্যে পরিস্থিতি বুঝে ডুমুরিয়া উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়কে স্বল্প সময় অবস্থান নিয়ে, আবারও সড়কের বিভিন্ন গাছে চড়ে নিরাপদ স্থানে অবস্থান নিতে দেখা গেছে।

ডুমুরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মাহমুদা বেগম জানান, ডুমুরিয়ার পার্শ্ববর্তী, যশোরের কেশবপুর উপজেলায় অনেক আগে থেকে এ হনুমানগুলোর বসবাস। খাদ্য সংকটে এরা প্রায়ই এ অঞ্চলে চলে আসে। মুখমণ্ডল কালো বলে এদের কালোমুখো হনুমান বলা হয়।