বন বিভাগ ও শিক্ষার্থীদের পরিবেশবাদী সংগঠন ‌‘টিম ফর এনার্জি অ্যান্ড ইনভায়রনমেন্টাল রিসার্চ (তীর)’ গাইবান্ধা সরকারি কলেজ শাখার সদস্যরা মঙ্গলবার একটি গঙ্গা কচ্ছপ অবমুক্ত করেছে। শহরের মাস্টারপাড়া থেকে উদ্ধারের পর এই দুর্লভ প্রজাতির কচ্ছপটি পুনরায় প্রকৃতিতে অবমুক্ত করা হয়েছে।

গাইবান্ধার ফরেস্ট রেঞ্জার আব্দুস সবুর জানান, শহরের মাস্টারপাড়ায় এসকেএস হাসপাতাল সংলগ্ন একটি নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের কাজের বালুর মধ্যে ওই কচ্ছপটি পাওয়া যায়। বাড়ির মালিক কচ্ছপটিকে দেখে গাইবান্ধা বন বিভাগকে জানালে সেটি উদ্ধার করা হয়। পরে পরিবেশবাদী সংগঠন ‘তীর’ এর কর্মীরা বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ আদনান আজাদ আসিফের কাছে পাঠালে তিনি কচ্ছপটিকে দুর্লভ গঙ্গা কচ্ছপ বলে শনাক্ত করেন।

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে কাজ করা সংগঠন ‘বাংলাদেশ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ফেডারেশন’ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আরাফাত রহমান জানান, এটি বাংলায় গঙ্গা কাছিম নামে পরিচিত। আইইউসিএন এর লাল তালিকাভুক্ত একটি বিপদাপন্ন প্রজাতি। একটি দুর্লভ প্রজাতির হলেও যমুনা নদীর তীরবর্তী এলাকায় কালেভদ্রে দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে- বালুর ট্রাকের সঙ্গে কাছিমটি চলে এসেছে।

বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরামর্শক্রমে পরিবেশকর্মী ও স্থানীয়দের উপস্থিতিতে মঙ্গলবার কচ্ছপটি যমুনা নদীতে অবমুক্ত করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গাইবান্ধা সদরের রেঞ্জার আব্দুস সবুর, তীর গাইবান্ধা সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি জিসান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রহীম রাফি এবং কার্যকরী সদস্য শেখ ফরিদ আহমেদ ও মো. সাব্বির রহমান।