ভোলার চরফ্যাসনে কুকুরের কামড়ে ৯ শিশুসহ ১৪ জন আহত হয়েছে। আহতদের চরফ্যাসন হাসপাতালে জলাতঙ্কের টিকা দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। হাসপাতালের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে একের এক কুকুরের কামড়ে আহত রুগী হাসপাতালে আসতে শুরু করে। কুকুরের কামড়ে আক্রান্তদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে জলাতঙ্কের টিকা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। 

আহত বৃদ্ধা সফিউল্লাহ জানান, সকালে তিনি বাড়ি থেকে বের হয়ে তার বাড়ি সংলগ্ন রাস্তার ওপর এলে পেছন থেকে একটি কুকুর তার হাতে কামড় দিয়ে মাংস তুলে ফেলেন। পরে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শোভন বসাক জানান, কুকুরের কামড়ে আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। গুরুতর আহত না হওয়ায় কাউকেই ভর্তি করা হয়নি। 

উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আতিকুর রহমান জানান, প্রজনন মৌসুমে কুকুরের উদ্রপ দেখা দেয়। গবাদী পশুসহ মানুষকে আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়। এ সময়ে মানুষকে কামড়িয়ে আক্রান্তের কারণ স্পষ্ট নয়। 


বিষয় : ভোলা চরফ্যাসন কুকুরের কামড়

মন্তব্য করুন