করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে শুক্রবার সকালে মাঠে কাজ শুরু করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযান চলাকালে একটি মোটরসাইকেলের আরোহীদের চেকপোস্টে থামতে বললেও তারা এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় একজন পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে ফেনসিডিল বহনকারী এক যুবক।

জানা যায়, গৌরীপুর-শ্যামগঞ্জ সড়কের উপজেলার মইলাকান্দা ইউনিয়নের মেডিডেঙ্গী এলাকায় লকডাউন বাস্তবায়নে শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান মারুফ। 

নেত্রকোনা থেকে ময়মনসিংহের দিকে যাওয়ার পথে মোটরসাইকেল আরোহী দুই যুবককে সন্দেহ হয় তার। তল্লাশি চৌকিতে দাঁড়ানোর জন্য তাদের সংকেত দিলেও তা অমান্য করে তারা। ধাওয়া দিয়ে আবু সাঈদ নামে এক যুবককে আটক করা হয়। কাঁধের ব্যাগটি ফেলেই পালানোর চেষ্টা করেছিল সে। অন্য যুবকটি পালিয়ে গেছে। সাঈদ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার কালীবাজাইল গ্রামের আবদুল গণির ছেলে। পালিয়ে যাওয়া অন্যজন নগরীর ভাঙাপুল এলাকার শিবলু মিয়া। 

সাঈদের ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে ভেতরে পাওয়া যায় পেপার দিয়ে মোড়ানো ৫ বান্ডিলে ১০০ বোতল ফেনসিডিল। তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।