করোনাভাইরাসের কঠোর বিধিনিষেধে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীতে ১০ কিলোমিটারের বেশি এলাকা নিয়ে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। রোববার বিকেল থেকে চট্টগ্রামমুখী লেনে এ যানজট শুরু হয়।

মহাসড়কের ভাটিয়ারী বানুরবাজার পোর্টলিংক লজেস্টিক কন্টেইনার ডিপোতে পণ্যবাহী ট্রাক, লরি ও কাভার্ডভ্যান ডেলিভারি ধীরগতিতে এ যানজট সৃষ্টি হয়েছে। যদিও এখানে গণপরিবহনের কোনো চাপ নেই। শনিবার একইভাবে সৃষ্ট যানজট সরাতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছিলেন হাইওয়ে পুলিশের রেকার চালকও।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোববার বিকেল ৩টায় পোর্টলিংক লজেস্টিক ডিপোতে আসা পণ্যবাহী গাড়িগুলো আটকে আছে। বন্ধ রয়েছে চট্টগ্রামমুখী লেনে যান চলাচল। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত রাস্তার উভয় পাশে দীর্ঘ যানজট লেগে থাকে। এতে অনেক রোগীর গাড়িও আটকা পড়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুন নবী বলেন, পোর্টলিংক গেটের আগে ডিপোর সামনের সেতুতে পণ্যবাহী একটি ট্রাক বিকল হওয়ার কারণে এ যানজট সৃষ্টি হয়েছে। যা পর্যায়ক্রমে ভাটিয়ারী পেরিয়ে ফৌজদারহাট পর্যন্ত ছাড়িয়ে যায়।

পণ্যবাহী ট্রাক চালক আবদুল হান্নান বলেন, বিকেল ৪টা থেকে আটকে আছি। কী কারণে যানজট লেগে আছে, তা বলতে পারছি না।

ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন বলেন, যানজট সৃষ্টির কারণে অনেক রোগীর গাড়িও আটকে আছে। বিষয়টি নজরদারিতে আনা দরকার বলে জানান তিনি। 

বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার আবুল হাসনাত বলেন, যানজট নিরসনে পুলিশের টিম কাজ করছে।