শ্রীপুরে মোখলেছুর রহমান নামের এক দোকানিকে প্রকাশ্যে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে পৌরসভার মাস্টার বাড়ি লিচু বাগান এলাকায় 'মা টেলিকম' নামের দোকানে এ ঘটনা ঘটে। 

ঘাতক রুবেল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার নৈকাঠির শামসুল হকের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, গত তিন দিন ধরে অনাহারে আছে জানিয়ে দোকানের ভেতরে ঢুকে পড়ে রুবেল। এ সময় দোকানি মোখলেছুর রহমান দোকানের ভেতরে ছিলেন। এ অবস্থায় রুবেল ক্যাশবাক্সে থাকা টাকা তার পকেটে ভরতে শুরু করলে দোকানি বাধা দেন। এ সময় মোখলেছুর কিছু বুঝে উঠার আগেই সঙ্গে থাকা ছুরি দিয়ে তাকে আঘাত করতে থাকে রুবেল। এক পর্যায়ে মোখলেছুর মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে তার গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়দের হাতে ধরা পড়ে রুবেল।

স্থানীয়রা আরও জানায়, কয়েকদিন আগে মাস্টার বাড়ি এলাকায় এক বন্ধুর বাড়িতে বেড়াতে আসে রুবেল। হাতে টাকা-পয়সা না থাকায় হতাশা গ্রাস করে তাকে। পরে ছিনতাইয়ের পথ বেছে নেয়। এর অংশ হিসেবে কৌশলে ওই দোকানে ঢুকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে সে। 

শ্রীপুর থানার ওসি মাহফুজ ইমতিয়াজ ভূঁইয়া বলেন, মোখলেছুরের মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা রুবেলকে আটকে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় ও রুবেলকে আটক করে।

নিহতের স্বজনরা জানান, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার জামিরাপাড়া গ্রাামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে মোখলেছ জমি কিনে বাড়ি তৈরি করে ওই এলাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করছিলেন। তিনি ২ সন্তানের জনক।