চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো এক নারীর দেহে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের অস্তিত্ব শনাক্ত হয়েছে। ৫০ বছর বয়সী ওই রোগী বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বুধবার রাতে বিষয়টি সমকালকে নিশ্চিত করেন চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএম হুমায়ূন কবির।

তিনি বলেন, ‘ওই নারীর শরীরে নানা উপসর্গ থাকায় প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। বুধবার রিপোর্টে তার শরীরে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের অস্তিত্ব পেয়েছি আমরা। তিনি বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’ 

হাসপাতালের কোন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটি আমি বলতে পারব না। কেননা, ওই রোগী কোন ওয়ার্ডে আছেন সেটি বললে দেখা যাবে অনেকেই তার সাক্ষাৎকার নিতে ছুটে আসবেন। অনেকে অযথা হাসপাতালে ভিড় করবেন। এতে তাকে সামাজিকভাবে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। এসব বিষয়ের কারণে আমরা ওই রোগীর নামও বলতে চাইছি না। শুধু এতটুকু নিশ্চিত করছি, তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।’ 

এসএম হুমায়ূন কবির বলেন, ‘ওই রোগীর ব্যাপারে শিগগির মেডিকেল বোর্ড বসিয়ে ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করে চিকিৎসা-সংক্রান্ত পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। চিকিৎসকদের পরামর্শের ভিত্তিতে প্রয়োজন হলে ওই রোগীকে ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।’ 

জানা গেছে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্ত হওয়া ওই নারীর শরীরে গত ৩ জুলাই করোনা শনাক্ত হয়। তবে ১৫ জুলাই তার করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এলেও পরে নানা শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। যে কারণে চার দিন আগে তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।