আগামীকাল রোববার থেকে রপ্তানীমুখী শিল্প কারখানা খোলার ঘোষণায় কঠোর লকডাউনের মাঝেও কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে পোশাকশিল্পের কর্মীরা। এতে করে ট্রাকসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে ঢাকা টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় খোলা ট্রাক, রিকশা, অটোরিকশা, মোটরসাইকেল, সিএনজি চালিত অটোরিকশায় করে কর্মস্থলে ফিরছে তারা। আর এতে করে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের। তাছাড়া কেউ স্বাস্থ্যবিধির কোনো তোয়াক্কা করছেন না।

সরেজমিন বঙ্গবন্ধু সেতু টাঙ্গাইল মহাসড়কের এলেঙ্গায় গিয়ে দেখা যায়, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে গাদাগাদি করে শত শত নারী-পুরুষ ট্রাকে চেপে গন্ত্যেব্যের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। সীমাহীন দুর্ভোগ মাথায় নিয়েই তারা গন্তব্যে যাচ্ছেন।

পোশাককর্মী নুরজাহান বেগম তার পাঁচ বছরের সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে বগুড়া থেকে রওয়ানা দিয়েছেন। গন্তব্যস্থল ঢাকার মিরপুরে। রোরবার তার পোশাক কারখানা খোলা। যে কোনোভাবে রাতের মধ্যে পৌছাতে হবে। বগুড়া থেকে একশ' টাকা দিয়ে সিএনজিতে এসেছেন শেরপুর পর্যন্ত। শেরপুর থেকে ছোট একটি ট্রাকে চেপে দুইশ' টাকা দিয়ে  বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় পর্যন্ত এসেছেন। তারপর মোটরসাইকেলে ১৫০ টাকা দিয়ে এসেছেন এলেঙ্গা পর্যন্ত। এলেঙ্গা থেকে দুইশ' টাকা দিয়ে ছোট একটি ট্রাকে বসেছেন, যে ট্রাকে গাদাগাদি করে চেপে বসেছেন তার মত আরো ২০/২৫ জন নারী-পুরুষ। ট্রাকের চালক তাদের চন্দ্রা পর্যন্ত নিয়ে যাবেন। এবাবে শত শত মানুষ বঙ্গবন্ধু সেতু পার হয়ে এলেঙ্গা এসে ভীর করেছেন। এখান থেকে যে যার মত করে যেভাবে পারছেন ঢাকার দিকে ছুটছেন।

আলমগীর হোসেন নামে এক পোশাক শ্রমিক বলেন, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় তাদের ভোগান্তির শেষ নেই। দ্বিগুণ তিনগুণ ভাড়া দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে তাদের কর্মস্থলে ফিরতে হচ্ছে। কর্তৃপক্ষ মুখে যাই বলুক, রোববার যোগদান করতে না পারলে পুরো মাসের বেতন বন্ধ থাকবে।

এদিকে ট্রাকে শুধু পণ্য পরিবহনের কথা থাকলেও পণ্যবাহী এসব ট্রাক চালকরা শত শত যাত্রী বহন করে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছে। মহাসড়কে পুলিশের চেকপোস্ট থাকলেও পুলিশ কোনো প্রকার ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এতে করে শত শত ট্রাক কঠোর লকডাউনের মধ্যেও গাদাগাদি করে হাজার হাজার যাত্রী বহন করছে।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত জানান, পোশাক কারখানা খোলার ঘোষণার পর থেইে হাজার হাজার যাত্রী যে যার মত করে ঢাকার দিকে ছুটছে। ঢাকার দিকে গাড়ির ব্যাপক চাপ রয়েছে। আমরা মাইকিং করে স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য অনুরোধ করছি।

গাদাগাদি করে ঢাকায় ফিরছেন পোশাককর্মীরা

গাদাগাদি করে ঢাকায় ফিরছেন পোশাককর্মীরা

Posted by Samakal on Saturday, July 31, 2021