অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। মাঝে মধ্যে কচ্ছপ গতিতে গাড়ি চললেও কিছুদূর যেতে না যেতেই থামতে হচ্ছে। সেতুর পশ্চিম পাড়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ও ঢাকা-উত্তরবঙ্গ উভয় লেনেই গাড়ির বেশ চাপ রয়েছে।

শনিবার থেকে শুরু হওয়া এই পরিস্থিতি রোববার দুপুরেও অব্যাহত আছে। সেতুর পশ্চিম পাড়ে বগুড়া-নগরবাড়ি ও হাটিকুমরুল-নাটোর-বনপাড়ামহাসড়কের যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। সেতুর পূর্বপাড়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কেও তীব্র্র যানজট।

যানজটে আটকে থাকা সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের হিসেব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. শাহআলম সমকালকে বলেন, ঢাকা থেকে সকাল ৯টায় সিরাজগঞ্জের দিকে যাত্রা করেছি। দুপুর ১২টার দিকে টাঙ্গাইল বাইবাসে আটকে রয়েছি।

সিরাজগঞ্জের মাছিমপুর মহল্লার রেন্ট-এ-কার ব্যবসায়ী অ্যালেন বাবু বলেন, শুধু ঢাকার দিকে জট, তা নয়। জট উত্তরের জেলাতেই ছড়িয়ে পড়েছে। রাতে রংপুর থেকে মাইক্রোবাসে যাত্রী নিয়ে ঢাকা যেতে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে যানজটের কারণে আটকা পড়েছি।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ওসি মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, ঢাকামুখী লেনে গার্মেন্টস শ্রমিকবাহী প্রচুর সংখ্যক গাড়ি ছুটেছে। ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গের দিকেও ছুটছে হাজার হাজার যানবাহন। ফলে সেতুর গোলচত্বর থেকে যানজট সৃষ্টি হয়ে কড্ডার মোড় পর্যন্ত ছাড়িয়ে যচ্ছে।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি মো. শাহজাহান আলী বলেন, কখনও ধীরগতিতে বা কখন যানজট নিয়ে চলছে গাড়ি। সকাল থেকেই জট নিরসনে কাজ করছে পুলিশ।

এদিকে সমকালের মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে মির্জাপুরের গোড়াই এলাকায় টাঙ্গাইলমুখী শতশত যানবাহনের হাজারো যাত্রীকে যানজটে আটকা পড়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

শনিবার সন্ধ্যার পর থেকে যানজট শুরু হয়ে রোববার দুপুর ১টার দিকেও দীর্ঘ যানজট দেখা গেছে। মহাসড়কের গোড়াই হাটুভাঙা রোড নামকস্থানে নির্মাণাধীন উড়াল সেতু এলাকায় একপাশে যান চলাচল বাধাগ্রস্থ হওয়ায় এই যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার গোড়াই হাটুভাঙা রোড এলাকা থেকে কালিয়াকৈর উপজেলার স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যাল পর্যন্ত দুই কিলোমিটার সড়কে এই যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে টাঙ্গাইলমুখী হাজারো যাত্রীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

জানা গেছে, চলমান লকডাউনে গার্মেন্টস ও কলকারখানার শ্রমিকদের কর্মস্থলে পৌঁছানোর জন্য গণপরিবহন ও লঞ্চ রোববার দুপুর পর্যন্ত চালু রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। ফলে মহাসড়কের মির্জাপুরের গোড়াই হাটুভাঙা রোডের ওই এলাকা যানজটের সৃষ্টি হয়।

মির্জাপুরের গোড়াই ক্যাডেট কলেজ এলাকার বাসিন্দা আজিজ রেজা জানিয়েছেন, বিকেল থেকে যানবাহনের চাপ মহাসড়কে বেড়ে গেলে শনিবার সন্ধ্যার পর থেকে যানজটের সৃষ্টি হয়। সারারাতই ওই অংশে যানজট অব্যহত ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন।

মির্জাপুরের গোড়াই হাইওয়ে থানার ওসি আজিজুল হক জানিয়েছেন, মহাসড়কে যানবাহনের চাপ হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় গোড়াই উড়াল সেতু নির্মাণাধীন এলাকার একপাশে যানচলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে।