কুমিল্লা থেকে কাভার্ডভ্যানে ঢাকায় পাচারকালে ৬ লাখ টাকার ভারতীয় শাড়ি জব্দ করা হয়েছে। এসময় দুই চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করা হয়। শনিবার দিবাগত রাতে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের একটি টিম নগরীর টমছমব্রিজ এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে।

পুলিশ জানায়, ভারত সীমান্তবর্তী এলাকায় কাভার্ডভ্যানে বোঝাই করে ভারতীয় শাড়ির একটি বড় চালান ঢাকার অভিমুখে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে কোতয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক রাজিব চক্রবর্তীর নেতৃত্বে এএসআই হান্নান আল-মামুন ও রুবেল মাহমুদসহ পুলিশের একটি টিম নগরীর টমছমব্রিজ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় কাভার্ডভ্যানটি (ঢাকামেট্রো-ন-১৭-৫৫০৯) থামিয়ে এতে তল্লাশি করে ২০টি প্লাস্টিকের বস্তায় প্রতিটিতে ৩০টি করে বিভিন্ন রঙয়ের মোট ৬০০ পিস শাড়ি এবং চোরাচালানের কাজে ব্যবহৃত কাভার্ডভ্যানটি জব্দ করা হয়। এ সময় কুমিল্লায় হোমনা উপজেলার বিজয়নগর গ্রামের মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে ইমন (৩৫) ও শেরপুরের শ্রীবর্দী উপজেলার জালকাঠা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে কবির আহমেদ (৩৭)কে গ্রেফতার করা হয়।

রোববার দুপুরে কোতয়ালি মডেল থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, জব্দকৃত শাড়ির মূল্য প্রায় ৬ লাখ টাকা। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তাদেরকে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।