ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার খনগাঁও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। 

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবুজাফর রিপন স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি বৃহস্পতিবার পেয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রেজাউল করিম।

রেজাউল করিম জানান, ইউপি সদস্য আরজীন পারভীন ও ইউনিয়ন ডিজিটাল উদ্যোক্তা অমল চন্দ্র রায়কে গালাগাল ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা, ইউনিয়নের বিভিন্ন আয়ের টাকা পরিষদে জমা না দেওয়ায় ১০ সদস্য তার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে ইউএনও বরাবরে দরখাস্ত দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ইউএনও রেজাউল করিম সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) তদন্তের অংশ হিসেবে পরিষদের বিশেষ সভায় গোপন ব্যালটের মাধ্যমে অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ও বিপক্ষে ভোট নেন। অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ৯টি ভোট পড়ে, যা দুই-তৃতীয়াংশের বেশি। 

জনস্বার্থে অনাস্থা প্রস্তাব অনুমোদিত হওয়ায় খনগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কায়সার আলী ডাবলুর পদটি শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে খনগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কায়সার আলী ডাবলুর সঙ্গে কথা হয়। তিনি এখনও চিঠি পাননি বলে জানান।