করোনা সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপী কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে জরুরি সেবা সংবাদপত্রকে আওতামুক্ত রাখা হয়েছে। তবে ফরিদপুরে একটি সংবাদপত্র বিক্রয় কেন্দ্রে গিয়ে বিক্রয় প্রতিনিধিকে জরিমানা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শহরের গোয়ালচামট মহল্লা এলাকার লাপারি হোটেলের পাশে অবস্থিত সংবাদপত্র বিক্রয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

ওই বিক্রয় প্রতিনিধির নাম বিজয় দাস। তিনি শহরের শ্রী অঙ্গন মহল্লার অধিবাসী। বিজয় দাস নিজে পত্রিকার এজেন্ট ও বিক্রেতা। লাপারি হোটেলের পূর্বপাশে 'ঊর্মি কম্পিউটার ফটোস্ট্যাট ও সংবাদপত্র সেন্টার' নামে দোকনটির স্বত্বাধিকারী তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুজ্জামান গাড়িতে করে ওই এলাকায় যান। এ সময় বিজয় দাস দোকানে বসে পত্রিকা বিক্রি করছিলেন।

বিজয় দাস জানান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসে তার দোকান কেন খোলা, তা জানতে চান। তখন তিনি (বিজয়) ম্যাজিস্ট্রেটকে বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী সংবাদপত্র এ বিধিনিষেধের আওতামুক্ত। এ জন্য তিনি দোকান খোলা রেখেছেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিজয় দাসের কথার প্রতি কোনো ভ্রূক্ষেপ না করে তাকে ১৮৬০ সালের দণ্ডবিধির ২৬৯ ধারায় ৪০০ টাকা জরিমানা করেন।

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. খায়রুজ্জামান বলেন, তিনি কোনো পত্রিকার দোকানে জরিমানা করেননি। এ ব্যাপারে ওই ম্যাজিস্ট্রেটকে সুনির্দিষ্টভাবে জানানো হলে তিনি উত্তর না দিয়ে মোবাইল ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। এরপর ওই ম্যাজিস্ট্রেটকে আবার ফোন করা হলে তিনি ধরেননি। তৃতীয়বার তাকে ফোন করা হলে তিনি সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন।