মানিকগঞ্জের ঘিওরে পুত্রবধূর করা শ্লীলতাহানির মামলায় এক শ্বশুরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার ১৩ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র ( চার্জশিট) জমা দিয়েছেন পুলিশ।  উপজেলার সিংজুরী ইউনিয়নের বীর সিংজুরী গ্রামের এ ঘটনায় বুধবার ভোর ৪টার দিকে ঘিওর থানায় মামলাটি করা হয়। আর অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয় বুধবার বিকেল ৫টায়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, অভিযোগকারীর স্বামী দিনমজুর। অধিকাংশ সময় বাড়ির বাইরে থাকেন। এক সন্তান নিয়ে বাড়িতে থাকেন তিনি। শ্বশুর সায়েদুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল তাকে। বিষয়টি স্বামীকে জানালে শ্বশুরকে স্থানীয় লোকজন দিয়ে সর্তক করা হয়। কিন্তু গত ২৫ জুলাই রাতে ঘুমিয়ে থাকার সময় শ্বশুর এসে তার শ্লীলতাহানি করে। এ সময় তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে আসামি দ্রুত পালিয়ে যান।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ বিপ্লব জানান, বীর সিংজুরী গ্রামের এক গৃহবধূ বুধবার ভোর ৪টার দিকে ঘিওর থানায় তার শ্বশুরের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে মামলা করেন। মামলাটি তদন্তের ভার দেওয়া হয় উপপরিদর্শক মো. আল মামুনকে। জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খানের নেতৃত্বে মামলাটি দ্রুত তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পান তদন্তকারী কর্মকর্তা। তাৎক্ষণিক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর মামলার বাদী ও সাক্ষীদের জবানবন্দি গ্রহণ করে সাড়ে ১৩ ঘণ্টার মধ্যে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ (সংশোধনী-২০০৩) এর ১০ ধারায় আদালতে মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা। এতদ্রুত আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিলের ঘটনা ঘিওর থানায় এটিই প্রথম। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।