যশোরের শার্শায় মা-মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে; মেয়েকে বিষ খাওয়ানোর পর মা আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার লক্ষণপুর ইউনিয়নের শুড়ারঘোপ গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

মারা যাওয়া দুইজন হলেন- ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে সুমি খাতুন (৩০) ও সুমির শিশুকন্যাআখি মনি (৬)।

প্রতিবেশীরা জানান, ৩ বছর আগে বিবাহ বিচ্ছেদের পর সুমি খাতুন তার শিশু কন্যা আখি মনিকে নিয়ে বাবার বাড়িতে থাকতেন। এ নিয়ে সুমির মায়ের সঙ্গে প্রতিনিয়ত কথা কাটাকাটি হতো। মঙ্গলবার সুমির মা সুমিকে বকাঝকা করেন। দুজনের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ বাকবিতণ্ডা চলে। এর জেরে সন্ধ্যার পর বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে মেয়ের মুখে বিষ ঢালার পর নিজেও বিষপান করেন সুমি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোমিনুল ইসলাম জানান, প্রথমে তাদেরকে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে আখিমনি এবং ভর্তির পর সুমি খাতুন মারা যায়।

শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বদরুল আলম খান জানান, খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মরদেহ দুটি যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।