ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়ক উন্নয়নে ১ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন বা ১৭৮ কোটি ডলার দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। শুক্রবার ফিলিপাইন্সের ম্যানিলায় সংস্থার বোর্ড সভায় এ ঋণ অনুমোদন করা হয়।

এডিবির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়কের কাজ শেষ হলে তা আঞ্চলিক বাণিজ্যের নতুন রুট বাস্তবায়নেও সহায়তা করবে। ওই রুটটি তামাবিল, শেওলা ও আখাউড়া স্থলবন্দর হয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের সঙ্গে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলোর সংযোগ স্থাপন করবে। পাশাপাশি ভুটান ও মিয়ানমারের সঙ্গেও ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ হবে।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে সাউথ এশিয়ান সাব-রিজিওনাল ইকোনমিক কো-অপারেশন (সাসেক) ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপনের মাধ্যমে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদারের লক্ষ্যে প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে এডিবির ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট সাতোমি সাকাগুচি বলেন, সাসেক প্রোগ্রামের প্রধান একটি অংশ হচ্ছে এ প্রকল্প। এটি বাস্তবায়ন হলে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের আঞ্চলিক বাণিজ্য বাড়বে। পাশাপাশি আনুষঙ্গিক বিভিন্ন খরচ কমে ব্যবসায় প্রতিযোগিতা সক্ষমতাও বাড়বে।

প্রকল্পটির আওতায় দুইলেনের ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চারলেনে উন্নীত করার পাশাপাশি ধীরে যানবাহন চলাচলের আলাদা লেন, ফুটপাত, ফুটওভার ব্রিজ এবং ওভারপাস নির্মাণ করা হবে। এডিবির সহায়তা ছাড়াও সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে এ প্রকল্পে অর্থায়ন করা হবে।