ঢাকা বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আলোচনার তুঙ্গে পঙ্কজ-শাম্মী: চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত কাল

বরিশাল-৪ আসন

আলোচনার তুঙ্গে পঙ্কজ-শাম্মী: চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত কাল

স্বতন্ত্র প্রার্থী পঙ্কজ নাথ ও আওয়ামী লীগ মনোনীত ড. শাম্মী আহমেদ

বরিশাল ব্যুরো

প্রকাশ: ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | ২০:৪৬

বরিশালের ভোটের রাজনীতিতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে বরিশাল-৪ (মেহেন্দিগঞ্জ-হিজলা) আসনের প্রার্থী আওয়ামী লীগ মনোনীত ড. শাম্মী আহমেদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী পঙ্কজ নাথ। 

শাম্মী আহমেদ অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক- এমনটা দাবি করে তার প্রার্থীতা বাতিল চেয়েছেন পঙ্কজ নাথ। অপরদিকে পরিবহন ব্যবসায় আয়কর বকেয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে পঙ্কজ নাথের বিরুদ্ধে। 

আজ রোববার যাছাই-বাছাইয়ে দুটি অভিযোগ নিয়ে দীর্ঘ সময়ে আলোচনা হলেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারেননি রিটানিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম। 

আওয়ামী লীগের একাংশের সঙ্গে পঙ্কজ নাথের বিরোধের জেরে দুই উপজেলায় গত কয়েকর বছর ধরে দফায় দফায় রক্তাক্ত সংঘর্ষ হয়। গতবছর সেপ্টেম্বরে পঙ্কজ নাথকে দলীয় সব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার ঘটনা দেশজুড়ে ছিল আলোচিত। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আসনটিতে দলের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমদকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। 

মনোনয়নবঞ্চিত পঙ্কজ নাথ নিরব থাকার পর শেষদিন বিকেলে অনলাইনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে নতুন করে আলোচনায় আসেন। অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক হওয়ায় শাম্মী আহমেদের মনোনয়ন বাতিল হবে বলে দাবি করছেন তিনি। অপরদিকে বরিশাল-৪ আসনে পঙ্কজ ছাড়া আওয়ামী লীগের বিকল্প প্রার্থীও নেই। 

রোবাবার যাছাই-বাছাইয়ে পঙ্কজ নিজেই শাম্মী আহমেদের মনোনয়ন বাতিলের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, শাম্মী আহমেদের বাংলাদেশের পাসপোর্ট রয়েছে চারটি। কিন্তু তার জাতীয় পরিচয়পত্র সার্চ দিলে কোন পাসপোর্ট দেখানো হচ্ছে না। গত ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত তাকে অস্ট্রেলিয়ার ভোটার দেখানো হচ্ছে। তার অস্ট্রেলিয়ান পার্সপোর্ট নম্বর হচ্ছে-এন ৫৮২৮৬৯২। মনোনয়ন ফরমের সঙ্গে শাম্মী অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকত্ব ত্যাগের ঘোষণাপত্র জমা দেন নাই। 

এর বিপরীতে ড. শাম্মীর আইনজীবী আজাদ রহমান জানান, ড. শাম্মী পাসপোর্ট করেছেন ই-পাসপোর্ট হওয়ার আগে। যে কারণে এনআইডি কার্ডের বিপরীতে তার পাসপোর্ট দেখা যাচ্ছে না। শাম্মীর পক্ষ থেকে পক্ষ থেকে পাল্টা অভিযোগ তোলা হয় পঙ্কজ নাথ তার রাজধানীতে ‘বিহঙ্গল পরিবহন’ ব্যবসার আয়কর বকেয়া রেখেছেন। 

এসব নিয়ে পাল্টাপাল্টাযুক্তির পর রিটানিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম জানান, আইনি বিষয় ঘেটে শাম্মীর নাগরিকত্বের অভিযোগ এবং আয়কর বকেয়ার বিষয়টি দালিলিক কাগজপত্র ঘেটে দু’জনের মনোনয়নের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

আগামীকাল সোমবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে রিটানিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

ড. শাম্মী ও পঙ্কজ নাথ এ বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলতে রাজী হননি। শাম্মীর আইনজীবী আজাদ রহমান জানান, ড. শাম্মীর পক্ষের প্রয়োজনীয় দালিলিক কাগজপত্র রিটানিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন

×