জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বীড়নগর গ্রামে দুটি শিশুকে ধর্ষণের মামলায় আবু সালাম (৫৫) নামে এক ব্যক্তির পৃথকভাবে ৬০ বছরের কারাদণ্ড ও ৩ লাখ টাকা জড়িমানা অনাদায়ে আরও তিন বছরসহ মোট ৬৩ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন ট্র্যাইব্যুনালের জেলা ও দায়রা জজ রুস্তম আলী এ আদেশ দেন।

জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের স্পেশাল পিপি ফিরোজা চৌধুরী জানান, ২০১৭ সালের ১৪ জুলাই সকাল আনুমানিক ১০টা ৩৫ মিনিটে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বীর নগর পুর্ব পাড়ার মোজাফফর এর বাড়িতে দুধ নিতে যায় দুই শিশু বান্ধবী। দুধ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে আনুমানিক ১১টা ৫মিনিটের সময় ওই এলাকার আবু সালাম (৫৫) ওই শিশু দুটিকে তার বাড়িতে টিভি দেখানোর কথা বলে নিয়ে যায়। এ সময় শিশু দুটির হাতে ২০ টাকা দিয়ে নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে দেশীয় চাকুর ভয় দেখিয়ে পর্যায়ক্রমে তাদের ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে শিশু দুটিকে হাসপাতালে চিকৎসা দেওয়া হয়। ওই ঘটনায় মামলা দায়েরের পর আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 

এরপর আসামি জামিন নিয়ে পলাতক আছে। দীর্ঘ শুনানি শেষে মঙ্গলবার আসামির অনুপস্থিতে এই রায় ঘোষণা করেন আদালতের বিচারক।

অন্যদিকে ওই আদালতে জয়পুরহাট সদরের হেরকুন্ডা গ্রামে স্ত্রী সোমা খাতুনের দায়ের করা নির্যাতেনর মামলায় স্বামী মোশারফ হোসেন ভোলাকে ৩ বছরের কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের জেলা ও দায়রা জজ রুস্তম আলী।