বঙ্গোপসাগরের মহীসোপান বা কন্টিনেন্টাল শেলফ নিয়ে ভারতের কিছু দাবির ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে জাতিসংঘে একটি চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে গত এপ্রিলে একই মহীসোপান নিয়ে বাংলাদেশের দাবির ওপরে আপত্তি জানিয়ে নিজেদের কিছু দাবি উল্লেখ করে জাতিসংঘে চিঠি দিয়েছিল ভারত।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ মহাসচিব বরাবর একটি চিঠি দেয় বাংলাদেশ। চিঠিটি জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, এবার ভারতের সেই দাবির ওপরে আপত্তি জানানো হয়েছে। খবর বিবিসি বাংলার

এর আগে গত এপ্রিলে জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণ সংক্রান্ত কমিশনে (সিএলসিএস) ভারত দাবি করেছিল, বাংলাদেশ যে মহীসোপান নিজেদের বলে দাবি করছে, তা ভারতের মহীসোপানের অংশ।

মহীসোপান একদিকে যেমন মৎস্য আহরণের বড় ক্ষেত্র, তেমনি খনিজ সম্পদের ভাণ্ডার, ছবি: বিবিসি

অবশ্য তখনই বাংলাদেশ জানিয়েছিল, ভারতের ওই আপত্তির কোনো আইনগত ভিত্তি নেই বলে তারা মনে করে। তখন এ বিষয়ে কমিশনের সামনে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরার কথাও জানায় বাংলাদেশ।

সমুদ্র তীরবর্তী দেশগুলোর সমুদ্রের দিকে পানির নিচে যে ভূখণ্ড ধীরে ধীরে ঢালু হয়ে নেমে যায়, তাকে ভূগোলের ভাষায় বলা হয় মহীসোপান বা কন্টিনেন্টাল শেলফ। যাকে আবার উপকূলীয় ওই দেশের বর্ধিত অংশ বলেও ধরা হয়।